‘রাজনীতির ঊর্ধ্বে থেকে আমলী পরিবেশ তৈরিতে কাজ করে ছারছীনা’

চাঁদপুর প্রতিনিধি.
আমীরে হিযবুল্লাহ, ছারছীনা শরীফের পীর আলহাজ্ব হযরত মাওলানা শাহ্ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহ বলেছেন, ‘আমরা দলীয় রাজনীতির ঊর্ধ্বে থেকে সমাজে আমলের (ভালো কাজ) পরিবেশ তৈরি করতে কাজ করছি। রাষ্ট্রের কল্যাণে ধর্মীয় অনুভূতি নিয়ে যুগ যুগ ধরে ছারছীনা দরবার কাজ করে যাচ্ছে ।

দেশ ও জাতির ক্ষতি হবে এমন কাজ ছারছীনা দরবার করে না। রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা আমাদের উদ্দ্যোশ্য নয়। আমরা চাই, প্রিয় নবীর আদর্শে, সিদ্দিকিন, শোহাদা, ছালেহীনদের অনুসূত পথে ব্যাক্তি, সমাজ ও দেশ গড়তে।

মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বাদ আছর চাঁদপুর পৌর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে জমইয়াতে হিযবুল্লাহ চাঁদপুর শহর শাখার উদ্যোগে ওয়াজ ও দোয়ার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ বক্তব্য দেন।

ছারছীনা পীর বলেন, ভবিষৎ প্রজন্মকে সঠিক পথ দেখাতে দাওয়াতি কাজ করুণ। আপনারা চেষ্টা করুন। আপনার মনটা একটু আমলের প্রতি স্থির করুন। আকিদা নিয়ে কারো সঙ্গে আপোস নেই। কেননা আকিদা যার ভালো হয় আমল তার শুদ্ধ হয়।

পীর ছাহেব আরো বলেন, তরিকা মশক করছি, কিন্ত আমরা এগোচ্ছিনা ছবক আদি মশক করে, সামনে এগোতে হবে। তরিকার ছবক মাশকের মাধ্যমে আমাদের ঈমান তাজা হয়। আমরা পীরের হাতে হাত দিয়ে বয়াত হয়েছি আল্লাহকে পাওয়ার জন্যে। পীরকে পাওয়ার জন্য নয়। কি কাজ করলে আল্লাহকে পাওয়া যাবে, সে কাজেই আমাদেরকে সময় ব্যায় করতে হবে। আপনারা তরিক্বার ছবকে এগিয়ে থাকলে সোনায় সোহাগায় উপনিত হবেন।

তিনি আরো বলেন, ‘দ্বীনের প্রোয়োজনে আপনাকে হাদী হতে হবে। বর্তমান সময় ভালো যাচ্ছে না। সুতরাং বুঝে শুনে কাজ করতে হবে। যেহেতু মরহুম পীর ছাহেব হুজুর বলতেন যে লোক পর্দা করেনা, নামাজ পড়েনা শরীয়ত মানে না, সে লোক কি বুদ্ধি মান? যারা পথভ্রষ্ট তাদের কে সঠিক পথে আনতে কাজ করতে হবে। আপনি যে পথে “আছেন, এটা যদি হক মনে করেন, তাহলে আত্বীয় স্বজন ও ছেলে সন্তানকেও এ পথে আনতে দাওয়াতি কাজ করুণ।’

সংগঠনের চাঁদপুর শহর শাখার সভাপতি মাওঃ মোঃ সাইফুদ্দিন খন্দকারের সভাপতিত্বে ওয়াজ করেন পীর ছাহেব হুজুরের সফরসঙ্গী ও বাংলাদেশ যুব হিযবুল্লাহর মহাসচিব মাওঃ রুহুল আমিন আফছারী, ছাত্র হিযবুল্লাহর কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওঃ মহিব্বুল্লাহ আল মাহমুদ, চাঁদপুর ডব্লিউ রহমান জুট মেইল জামে মসজিদের খতিব মাওঃ মোঃ জসিম উদ্দিন খন্দকার।

মাহফিলে সংগঠনের চাঁদপুর শহর শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাওঃ মোঃ আবদুর রহমান গাজীর উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের জেলা আহবায়ক হাজী আবদুল আহাদ, চাঁদপুর সরকারি কলেজের প্রফেসর মোঃ আল আমিন, চাঁদপুর আহমদিয়া ফাযিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওঃ মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান খান, বাগাদী আহমদিয়া ফাযিল মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওঃ আহমদ উল্লাহ,

শাহতলী কামিল মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মুফতি মোঃ ইয়াছিন, ফরিদগঞ্জ উপজেলা জমইয়াতে হিযবুল্লাহর আহবায়ক অধ্যক্ষ মাওঃ আহম সাইফুল্লাহ, ফরিদগঞ্জ মজিদিয়া কামিল মাদ্রাসার প্রধান মুহাদ্দিস মাওঃ মোঃ মমিনুল ইসলাম খান, হাজীগঞ্জ উপজেলা জমইয়াতে হিযবুল্লাহর সভাপতি অধ্যক্ষ মাওঃ মাহবুবুল হাসান, চাঁদপুর সদর উপজেলা জমইয়াতে হিযবুল্লাহর সাধারণ সম্পাদক মাওঃ মফিজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মাওঃ মোঃ মাইনুদ্দিন ঢালী,

জেলা কাজী সমিতির সভাপতি মাওঃ মোঃ ফজলুল কবির পাটওয়ারী , কমিউনিটি পুলিশিং চাঁদপুর সদর কমিটির সভাপতি সালেহ উদ্দিন আহমেদ জিন্নাহ, মাহফিল এন্তেজামিয়া কমিটির সভাপতি হাজী মোঃ হাসান আলী ভুঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক হাফেজ গোলাপ হোসেন কাজী, বিশিষ্ট দানবীর আলহাজ্ব মোঃ তবিউল্লাহ খলিফা, কালেক্টরেট জামে মসজিদের খতিব মাওঃ মোঃ মোশাররফ হোসাইন,

শাহী জামে মসজিদের খতিব মাওঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন, বায়তুল ফালাহ জামে মসজিদের খতিব মাওঃ আল আমিন, জেলা ছাত্র হিযবুল্লাহর সভাপতি মোঃ মজিবুর রহমান, জমইয়াতে হিযবুল্লাহ, যুব ও ছাত্র হিযবুল্লাহর শহর শাখার বিভিন্ন মসজিদের ইমাম, বিভিন্ন মাদরাসার শিক্ষকসহ রাজনৈতিক, সামাজিক ও স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ।

পরে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে দোয়া মোনাজাত করেন আমীরে হিযবুল্লাহ, ছারছীনা শরীফের হযরত পীর ছাহেব কেবলা আলহাজ্ব হযরত মাওলানা শাহ্ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহ।


দেশজুড়ে